ডা: আব্দুর রহিমের বক্তব্য= আইন প্রণেতা (এমপি) ও স্থানীয় সরকার (স্থানীয় সরকার প্রতিনিধি মেয়র থেকে মেম্বার পর্যন্ত)

বিজয়বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত অক্টোবর ১৫, ২০২০
ডা: আব্দুর রহিমের বক্তব্য= আইন প্রণেতা (এমপি) ও স্থানীয় সরকার (স্থানীয় সরকার প্রতিনিধি মেয়র থেকে মেম্বার পর্যন্ত)

দোয়ারা বজার প্রতিনিধি:

দোয়ারাবাজার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডা: আব্দুর রহিম একটি সভায় বক্তব্য দিতে গিয়ে বলেছেন বিনা ভোটের এমপি, গনতন্ত্র আজ ধংস করা হচ্ছে, ফক্কিনির পুত জনপ্রতিনিধি কেন হবে।
এমপি/আইন প্রণেতার কাজ হচ্ছে দেশের জন্য আইন প্রণেয়ন করা আর স্থানীয় সরকার প্রতিনিধি (মেয়র, উপজেলা চেয়ারম্যান, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান, মেম্বার) কাজ হচ্ছে নিজ নিজ এলাকায় উন্নয়নে কাজ করা, কাজ/উন্নয়ন আসবে আইনের মাধ্যমে। কিন্তু আজ আমার দেখি একটি টয়লেটের কাজের জন্য আমাদের এমপি মহোদয় নিকট যেতে হয়, এই কি গনতন্ত্র, গনতন্ত্র হচ্ছে যার যার অবস্থান থেকে স্বাধীন ভাবে কাজ করা বা অন্যের ক্ষতি না করে স্বাধীন ভাবে কাজ করা/ স্বাধীন মতামত প্রকাশ করা।
দেশের আওয়ামীলীগ, বিএনপিসহ সকলেই জানে এখন কিভাবে সংসদ নির্বাচন হয়/ কিভাবে ভোট হয়।
আজকাল দেখা যায় ক্ষমতার জন্য মানুষের লোভ কারণ জনপ্রতিনিধি হতে পারলেই সম্পদ অনেক গুন বেড়ে যাবে বা ধনী হওয়া যাবে, কিন্তু জনপ্রতিনিধি হলেতো মানুষের সেবা করতে গিয়ে সম্পদ কমে যাবার কথা। তাই উপজেলা চেয়ারম্যান ডা: আব্দুর রহিম বক্তব্য ফক্কিনির পুত জনপ্রতিনিধি নয়, মেম্বার থেকে এমপি পর্যন্ত সৎ মানুষ জনপ্রতিনিধি হউক, মানুষের টাকা যেন ক্ষেত্রে না হয়।
ডা: আব্দূর রহিম ১৯৮৪/৮৫ খ্রীষ্টাব্দ প্রথম উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন তখন উপজেলা পরিষদের মাধ্যমে প্রায় প্রতিটি কাজ হতো/ উপজেলা চেয়ারম্যানরা স্বাধীন ভাবে কাজ করতে পারতো। কিন্তু আজ সেই ভাবে উন্নয়নসহ কোন কাজ উপজেলা পরিষদ করতে পারে না। তাই ডা: আব্দুর রহিম সাহেব জনপ্রতিনিধিদের মনে কথা প্রকাশ করলেন।
ব্যক্তি হিসেবে ডা: আব্দুর রহিম একজন সাদা মনের মানুষ, বীর মুক্তিযোদ্ধা, ডাক্তার ও সৎ মানুষ।