ঘাড় মটকে দেয়া কি এতো সহজ? একটি চিরন্তন কাহিনী

বিজয় বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত নভেম্বর ১৯, ২০২০
ঘাড় মটকে দেয়া কি এতো সহজ? একটি চিরন্তন কাহিনী

মাহবুবুর রহমান তালুকদারঃ ভাস্কর্যকে ইসলাম বিরোধী আখ্যা দেয়ায় আমাদের ঘাড় মটকে দেবার ঘোষণা দানকারীকে এ ঘটনা শুনিয়ে দিন।

সাহাবী আব্দুল্লাহ বিন হুযাফা সাহমি রাযি.।

১৯ হিজরি।

রোম সম্রাট কিসরার হাতে বন্দি হলেন। তাকে শূলিতে চড়ানো হল। বলা হলো, ধর্ম ছাড়ো, নইলে নির্ঘাত ফাঁসি।

তিনি বললেন, কখনোই নয়।

কিসরা বলল, ধর্ম ছাড়লে আমার সাম্রাজ্যে তোমাকে পার্টনার বানাব, ইসলাম ছেড়ে খৃস্টান হয়ে যাও।

“আরে রাখো”, তিনি বললেন, “ তোমার সমগ্র সাম্রাজ্য কেন, সারা পৃথিবী দিয়ে দিলেও ইসলাম ছাড়ব না।”

বিরাট এক পাতিলে তেল গরম করা হল।

উত্তপ্ত পাতিলে ফেলা দেয়া হল দু’জনকে। মূহুর্তেই নিভে গেল দু’টি প্রাণ। পাতিলের একদিকে হাড় অপরদিকে মাংস।

আব্দুল্লাহ বিন হুযাফাকে বলা হল, তোমাকেও ফেলা হবে। এখনও সময় আছে। ইসলাম ছাড়ো।

তিনি জবাব দিলেন, কখ্খনো নয়।

তাকে উত্তপ্ত তেলের পাতিলে নেয়া হচ্ছে।

তিনি কাঁদছেন।

তুমি কি মরণের ভয়ে কাঁদছ? খৃস্টান হবা? এখনও কিন্তু সময় আছে!

তিনি বললেন, আমি ভয়ে কাঁদছি না। কাঁদছি, আমার যদি আমার গায়ের লোমের সংখ্যা সমান প্রাণ থাকত, আমি সবক’টি প্রাণ মুহাম্মদের দ্বীনের জন্য বিলিয়ে দিতে পারতাম। কিন্তু হায়, আমার তো মাত্র একটাই প্রাণ!

এমন দৃঢ়তা দেখে বদলে গেল কিসরার মন। সে বলল, আমার ললাটে একটা কিস দিলেই তোমাকে ছেড়ে দেব। তিনি বললেন, দিতে পারি এক শর্তে। আমার সকল সাথীদেরকে ছেড়ে দিতে হবে। কিসরা শর্ত মেনে নিল।