আঁচিল কেনো হয়?

বিজয়বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত নভেম্বর ২৯, ২০২০
আঁচিল কেনো হয়?

স্কিনের উপর ছোটখাটো উঁচু (টিউমারের মত) রোগ কে আমরা সাধারণতঃ আঁচিল বলে থাকি। দেহের যে কোনো স্থানে বিভিন্ন প্রকার আঁচিল হতে পারে এবং এর বিভিন্ন কারণ থাকতে পারে, যেমনঃ-
১/ Warts—–ভাইরাস জনিত বয়স্কদের আঁচিল।
২/ Molluscum Contagiosum—-ভাইরাস জনিত শিশুদের আঁচিল।
৩/Skin tags— বংশগতজনিত বয়স্কদের নরম আঁচিল
৪/ Seborrhoeic keratoses— বংশগতজনিত বয়স্কদের শক্ত আঁচিল।
৫/ Sebaceous hyperplasia —তৈলগ্রন্থির টিউমার।
৬/ Milia— ঘর্মগ্রন্থির টিউমার।
৭/ Dermatosis papulosis nigra—- বংশগত জনিত বয়স্কদের কালো আঁচিল/তিল।
৮/ Syringoma——- বংশগত জনিত বয়স্কদের চোখের চারপাশে হলদে আঁচিল/তিল।
Verruca Vulgaris:-
আঁচিল ( Wart) একটি ভাইরাল ইনফেকশন। এ ধরনের ইনফেকশনে মৃত্যু ঝুঁকিতো নেই; তবে এড়িয়ে যাওয়াও ঠিকও নয়। সঠিক উপায়ে আঁচিলের চিকিৎসা করা না হলে এগুলো ছড়িয়ে পড়ার আশংকা দেখা দেয়।
শরীরের যেকোনো স্থানে, বিশেষ করে হাত ও পায়ের পাতায়, আঁচিল হয়ে থাকে। আঁচিল দেখতে ফুলকপি, শক্ত ফোস্কা বা খসখসে চামড়ার ন্যায় হয়ে থাকে। ভাইরাল ইনফেকশন, বিশেষ করে, হিউম্যান প্যাপিলোমা ভাইরাস (human papillomavirus) বা সংক্ষেপে এইচ-পি-ভি (HPV) দ্বারা সংক্রমিত হলে ত্বকে আঁচিল হতে পারে। আঁচিলের চিকিৎসা করা না হলে তা সারা শরীরে ছড়িয়ে পড়তে পারে।
কোনো কোনো ক্ষেত্রে আঁচিল ছোঁয়াচে হয়ে থাকে এবং কাঁটা-ছেঁড়া থাকলে একজনের শরীর থেকে অন্যজনের মধ্যে ছড়াতে পারে। আঁচিলের চিকিৎসা করানো না হলেও সাধারণত কয়েক মাসের মধ্যে আপনা আপনি ভালো হয়ে যায়। তবে একবার ভালো হয়ে যাওয়ার পর পুনরায় হতে পারে এবং কয়েক বছর পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে। আঁচিল কন্ডিলোমা (Condyloma) নামেও পরিচিত।
হোমিওপ্যাথি চিকিৎসার মাধ্যমে এই রোগ আরোগ্য করা সম্ভব।
যে কোনো রোগ সমস্যায় ভিজিট করুন-
#দিহান হোমিও হল
ইসলামাবাদ আ/এ, বাহুবল সদর, হবিগঞ্জ।
কল/ইমুঃ ০১৭৪৭-৩১৩৯০০
(শুধু মাত্র একক হোমিওপ্যাথি মেডিসিন দ্বারা চিকিৎসা করা হয়।)