২৩ জানুয়ারি একটি ঐতিহাসিক দিন-এমপি মজিদ খান।

বিজয়বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত জানুয়ারি ২৪, ২০২১
২৩ জানুয়ারি একটি ঐতিহাসিক দিন-এমপি মজিদ খান।

হবিগঞ্জ বানিয়াচংয়ে প্রধানমন্ত্রী‘র উপহারের ঘর পেয়েছেন ৫৫ পরিবার।।
আকিকুর রহমান রুমনঃ-মুজিব বর্ষ উপলক্ষ্যে হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারের ঘর পেয়েছেন ৫৫ পরিবার।শুধূ ঘর‘ই নয় ঘরের সাথে ২ শতক করে জমি ও পেয়েছেন ওই সমস্ত পরিবার।
২৩ জানুয়ারী সকাল ৯টায় গনভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এক ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সারাদেশের গৃহহীন পরিবারের জন্য নির্মিত ঘর হস্তান্তরের আনুষ্টানিক উদ্ধোধন করেছেন।
এ উপলক্ষ্যে বানিয়াচং উপজেলা পরিষদ মিলনায়তন থেকে সংযুক্ত হয়ে অনুষ্টানে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এডঃ আব্দুল মজিদ খান,উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কাসেম চৌধুরী,উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুদ রানা,ভাইস চেয়ারম্যান ফারুক আমীন,উপজেলা আওযামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহজাহান মিয়া,সহকারী কমিশনার(ভূমি) ইফফাত আরা জামান ঊর্মি,অফিসার ইনচার্জ মোঃএমরান হোসেন,কৃষি কর্মকর্তা এনামূল হক,অধ্যক্ষ স্বপন কুমার দাশ,শিক্ষা কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম সরকার,ইউএইচও শামীমা খানম,প্রকল্প কর্মকর্তা মলয় কুমার দাশ,সাবরেজিষ্ট্রার মোস্তফা কামাল পাশা,সহকারী প্রোগ্রামার মোফাজ্জল হোসেন,যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা জাফর সাদিক,ফায়ার ষ্টেশন ইনচার্জ সৈয়দ শেখ,প্রেসক্লাব সভাপতি মোশাহেদ মিয়া প্রমূখ।
মুজিব বর্ষ উপলক্ষ্যে ভূমি ও গৃহহীনদের কে সরকারীভাবে ঘর দেওয়ার লক্ষ্যে বানিয়াচংয়ে ৬৬টি ঘরের কাজ চলমান আছে।
বর্তমানে বানিয়াচং উপজেলার জন্য ১০৫টি ঘর বরাদ্ধ দেওয়া হয়েছে।
উপজেলার ১ নম্বর উত্তর-পূর্ব,২ নম্বর উত্তর-পশ্চিম,৩ নম্বর দক্ষিন-পূর্ব,৪নম্বর দক্ষিন-পশ্চিম,৬ নম্বর কাগাপাশা,১০নম্বর সুবিদপুর,১৩ নম্বর মন্দরী ইউনিয়নে মোট ১০৫টি ভূমি ও গৃহহীন পরিবারের জন্য ঘরও জমি বরাদ্ধ করা হয়েছে।
বানিয়াচং উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়,বানিয়াচং উপজেলায় তালিকাভূক্ত ভূমিহীন পরিবার আছে ৯৮৭টি।
তাদেরকে পর্যায়ক্রমে ঘরসহ জমি প্রদান করা হবে।
এবং যাদের নিজস্ব ভূমি আছে কিন্তু ঘর নাই তাদেরকেও ঘর তৈরি করে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়।
এ উপলক্ষ্যে সংক্ষিপ্ত আলোচনায় স্থানীয় সংসদ সদস্য এডঃ আব্দুল মজিদ খান বলেন,আজকের ২৩ জানুয়ারী একটি ঐতিহাসিক দিন।এই ঐতিহাসিক দিনের আজকের এই ঘটনার স্বাক্ষী হয়ে রইলাম আমরা।তিনি এ সময় বলেন বিশ্বের কোন রাষ্ট্র নায়ক একদিনে একসাথে এত ঘর গৃহহীনদেরকে কখনও দিয়েছেন বলে কোন নজির বিশ্বের বুকে নেই।
এটা সম্ভব হয়েছে জাতিরজনক বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য।
মুজিব বর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষ্যে দেশবাসীর জন্য এর চেয়ে আর বড় সুসংবাদ কি হতে পারে।
আমরা সকলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়া করবো। আমরা আজ দোয়া করবো জাতির জনকের আত্মার শান্তির জন্য।

বিজয় বাংলা/হাশেম/২০২১ইং