আন্তর্জাতিক সাহিত্য চর্চাঃ বাথরুমের ভেতরে দেয়ালে লেখা!

বিজয়বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত ১৭, মে, ২০২১, সোমবার
<strong>আন্তর্জাতিক সাহিত্য চর্চাঃ বাথরুমের ভেতরে দেয়ালে লেখা!</strong>

সাইমুম সাদীঃ সিলেট থেকে ঢাকায় ফিরছি একটি কারে করে। হাইওয়েতে একটি রেস্টুরেন্টের সামনে কার পার্ক করলো ড্রাইভার। রেস্টুরেন্টের নাম উজানভাটি।

উজানভাটির গণ বাথরুমে ঢুকে অবাক হলাম।চমৎকার চমৎকার গ্রাফিতি, ওয়াল রাইটিং, প্রেমকাব্য। বাথরুমে কিজন্য এসেছি তা ভুলে পড়তে লাগলাম এসব অমর কাব্যগাথা।

একজন লিখেছে, স্বর্ণা, তোমাকে না পাওয়ার বেদনায় এই দুনিয়া থেকে বিদায় নিচ্ছি। জানিনা এই লেখা তোমার চোখে পড়বে কিনা, যদি পড়ে আমাকে ক্ষমা করে দিও। ইতি, তোমার বদরুল।

বুঝতে পারছিনা, স্বর্ণা কিভাবে পড়বে বদরুলের এই লিখা কারণ স্বর্ণা কি কখনো এদিকে আসবে, এটা তো পুরুষ বাথরুম, চিন্তায় কুলাচ্ছেনা ।

আরেকজনের নাম ছমরু মিয়া। ছমরু মিয়া প্রেমে ব্যার্থ হয়ে সেই প্রতারক প্রেমিকার ফোন নাম্বার লিখে দিয়েছেন বাথরুমের দেয়ালে।

একটু খেয়াল করে দেখলাম আরেকজন এই লেখার নিচে লিখেছে, শালা বানচোত এই নাম্বার কোতয়ালি থানার ওসি সাহেবের। ফাজলামি করার জায়গা পাওনা। প্রেম তোমার পা… দিয়া… (লিখার যোগ্য না)

আমারও মনে হল ছমরু মিয়া লোকটা ফাজিল। একটা থানার ওসি প্রেমিকা হতে যাবেন কেন? ব্যাটা সাহস থাকলে ওসি সাহেবকে গিয়ে বলেই দেখো আই লাভ ইউ, লাভ ইউর পাছা দিয়া ডিম প্রবেশ করতে বেশী সময় লাগার কথা না।

সবচেয়ে আকর্ষণীয় হয়েছে জনৈক পত্রিকা সম্পাদকের পক্ষ থেকে লেখা বিজ্ঞাপন। সম্পাদক তার সাহিত্য কানন পত্রিকার জন্য আকর্ষণীয় বেতনে মফঃস্বল সাংবাদিক নিয়োগের বিজ্ঞাপন মার্কার পেন দিয়ে লিখে রেখেছেন দেয়ালের এক কোণায়।

ওখানে তিনি লিখেছেন, প্রকৃত সাহিত্য প্রেমিক যে কেউ চাকরী করতে পারবেন। অতিরিক্ত যোগ্যতা হিসেবে রবীন্দ্র সংগীত জানা লোককে অগ্রাধিকার দেয়া হবে। এক্ষেত্রে রবীন্দ্রনাথের এসো নীপবনে কবিতাটি জানা থাকা আবশ্যক।

এই বিজ্ঞাপনের নিচে একজন লিখেছে, তুই একটা খবিস সাংবাদিক, টয়লেটে বিজ্ঞাপন দিয়েছিস। তোরে কত ফোন দিলাম ব্যাটা রিসিভ করিস নাই।

খেয়াল করে দেখলাম সাহিত্য কানন পত্রিকার অফিসের ঠিকানা লেখা রয়েছে পুরান ঢাকার জয়কালী মন্দিরের আশেপাশে। আমি ঠিকানা এবং ফোন নাম্বার মুখস্থ করে বেরিয়ে এলাম বাথরুম থেকে।

আমার কাজ এখন একটাই, সাহিত্য কানন পত্রিকার সম্পাদক সুরুজ মিয়া সাহেবকে খোজে বের করা।

বাথরুম সাহিত্য নিয়ে বাংলা সাহিত্যে একটা আলাদা সাবজেক্ট খোলা যায় কিনা তা নিয়ে উনার সাথে একটা জ্ঞানগর্ভ আলোচনা করা উচিত।

সম্পাদক সুরুজ মিয়া সাহেব কি আমার ফোন রিসিভ করবেন কে জানে!

শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন
  • 17
    Shares