জবানবন্দি শেষে ত্ব-হা ও তার সঙ্গীদের ছেড়ে দেয়ার আদেশ

বিজয়বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত ১৯, জুন, ২০২১, শনিবার
<strong>জবানবন্দি শেষে ত্ব-হা ও তার সঙ্গীদের ছেড়ে দেয়ার আদেশ</strong>

বিজয় বাংলা অনলাইনঃ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুমুল আলোচিত ইসলামী বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান ও তার সফর সঙ্গীদের জবানবন্দি শেষে নিজ নিজ জিম্মায় ছেড়ে দেয়ার আদেশ দিয়েছেন আদালত।

রংপুর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক কে এম হাফিজুর রহমান শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে এ আদেশ দেন।

এ সময় তাদের জবানবন্দি রেকর্ড শেষে নিজ নিজ জিম্মায় ছেড়ে দেয়া হলে আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান তার মা, বোন এবং মামার সাথে একটি সাদা রঙের গাড়িতে করে বাড়ির উদ্দেশে রওনা হন।

এর আগে শুক্রবার জুমার নামাজের আগে সন্ধান মেলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুমুল আলোচিত এই ইসলামী বক্তার। রংপুর মহানগরীর মাস্টার পাড়া এলাকায় তার শ্বশুরবাড়ি থেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে ডিবি কার্যালয়ে নেয়া হয়। পরে ডিবি কার্যালয় থেকে আদালতে হাজির করা হয় তাকে।

এ ব্যাপারে রংপুর কোতোয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুর রশিদ জানান, আদালতে উপস্থাপনের পর আদনান, আমির ও মুহিত ১৬৪ ধারায় ভিকটিম হিসেবে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। এর আগে তারা সুস্থ সবল এবং প্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ায় নিজ নিজ জিম্মায় জীবন-যাপনের অনুমতি চেয়ে আবেদন করেন আদালতে। এ সময় বিচারক কে এম হাফিজুর রহমান তাদের নিজ নিজ জিম্মায় ছেড়ে দেয়ার আদেশ দেন।

তবে জবানবন্দিতে তারা কী বলেছেন সে ব্যাপারে আগামীকাল জবানবন্দির কপি হাতে পাওয়ার পর সাংবাদিকদের জানানো হবে।

তিনি আরো বলেন, বগুড়ার শিবগঞ্জের বাসিন্দা ফিরোজ থানায় করা জিডি প্রত্যাহার করায় তাকে আদালতে উপস্থাপন করা হয়নি।

এ ব্যাপারে ত্ব-হা ও তার সফর সঙ্গীদের আইনজীবী সোলাইমান সিদ্দিক বাবু জানান, জিডির (সাধারণ ডায়েরি) সূত্র ধরে ভিকটিম হিসেবে তাদের আদালতে উপস্থাপন করা হয়েছে।

আবু ত্ব-হার মামা আমিনুল ইসলাম জানান, ত্ব-হা ও তার সফর সঙ্গীরা ফিরে এসেছে এজন্য আল্লাহর কাছে শুকরিয়া। এ সময় তিনি সাংবাদিক ও পুলিশ বাহিনীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার (১০ জুন) রংপুর থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেয়ার পর রাজধানীর গাবতলী থেকে নিখোঁজ হন আলোচিত ইসলামী বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান ও তার সফর সঙ্গীরা। এর পর পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করতে গেলে তা গ্রহণ করা হয়নি বলে অভিযোগ করে তার পরিবার।

সুত্র : নয়া দিগন্ত

শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন
  • 2
    Shares