এক সময় নেজামে ইসলাম পার্টির একই সাথে ৩৬ জন এমপি ও ৫ জন মন্ত্রী ছিলেন!

বিজয়বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত ২৩, জুন, ২০২১, বুধবার
<Strong>এক সময় নেজামে ইসলাম পার্টির একই সাথে ৩৬ জন এমপি  ও ৫ জন মন্ত্রী ছিলেন!</Strong>

অনলাইন ডেস্কঃ
১৯৫৪ সালে নেজামে ইসলাম পার্টি জাতীয় নির্বাচনে অংশ নেয়। এই নির্বাচনে তাদের এককালের পৃষ্ঠপোষক ক্ষমতাসীন মুসলিম লীগকে পরাজিত করার লক্ষ্যে অপরাপর বিরোধী দলগুলোর সমন্বয়ে একটি যুক্তফ্রন্ট গঠন করা হয়। ফ্রন্টের পক্ষ থেকে ২১-দফা দাবি সংবলিত একটি নির্বাচনী ইশতেহার প্রকাশ করা হয়। এর ভূমিকায় বলা হয় : ‘কুরআন ও সুন্নাহ-বিরোধী কোন আইন প্রণয়ন করা হবে না।’

যুক্তফ্রন্ট সরকারে নেজামে ইসলাম পার্টি অংশ নেয় এবং মন্ত্রিত্ব লাভের সুবাদে গুরুত্বপূর্ণ নীতি নির্ধারনী ভূমিকা পালন করে। জাতীয় ও প্রাদেশিক পরিষদে দলটির ৩৬ জন নেতা নির্বাচিত হন।

জাতীয় পরিষদে সংসদীয় দলের নেতা ছিলেন দলীয় সভাপতি মাওলানা আতহার আলী (রহ.), এডভোকেট মৌলভী ফরিদ ছিলেন কেন্দ্রীয় শ্রম মন্ত্রী। প্রাদেশিক পরিষদের স্পীকার ছিলেন নেজামো ইসলামের আব্দুল ওহাব খান। এছাড়া আইন, ভূমি ও শিক্ষা মন্ত্রনালয়ও ছিল নেজামে ইসলাম পার্টির মন্ত্রীদের দায়িত্বে।

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী চৌধুরী মুহাম্মদ আলী পরবর্তীতে নেজামে ইসলাম পার্টিতে যোগ দিলে তাকে দলের সভাপতি নিযুক্ত করা হয়।মাওলানা আতহার আলী (রহ.) পাকিস্তান আইন প্রনয়ন সংসদীয় কমিটির সভাপতি মনোনীত হন।

এক সময় এমপি মন্ত্রীর বিশাল দলটি শক্তি মত্তা হারিয়ে বিলিন হয়ে যায়। এদেশের ইসলামপন্থীদের যে কোন ভালো সংবাদে স্বাগতম। তবে ছোটখাট বিজয়ে উল্লাস নয় , আল্লাহর ভয়ে কান্না চাই। এই জিম্মাদারী যেন আদায় করতে পারি। মঞ্জিল অনেক দুর! পথ অনেক বাকী!!

ইতিহাস থেকে শিক্ষা নেয়া দরকার এদেশের ইসলামপন্থীদের

শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন
  • 29
    Shares