ফুড কারখানায় আগুনঃ মালিকের অবহেলাজনিত স্ট্রাকচারাল হত্যাকাণ্ড

বিজয়বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত ৯, জুলাই, ২০২১, শুক্রবার
<strong>ফুড কারখানায় আগুনঃ মালিকের অবহেলাজনিত স্ট্রাকচারাল হত্যাকাণ্ড</strong>

জিয়া হাসানঃ ফায়ার এক্সিট যদি নাও থাকে, বিল্ডিং এর প্রধান সিঁড়ি যদি খোলা থাকে, একটা বিল্ডিং এর চতুর্থ তলায় ৫০ জন শ্রমিকের মৃত্যু প্রায় অসম্ভব। শ্রমিকেরা দেখতে না পেলেও অথবা তাপ বেশি হলেও ধোঁয়ার মধ্যে এক মিনিটে নাক বন্ধ করে নিচে নেমে যাবে।

এই ধরনের একটা ছোট বিল্ডিংয়ে তখনই একটি ফ্লোরে ৫০ জনের মৃত্যু সম্ভব, যখন ভেতর থেকে তালা দিয়ে লক করা থাকবে। অথবা প্রধান গেটের সামনে আগুন লাগার মত রাজ্য জিনিসপত্র পড়ে থাকবে যে, ওই পথটা আবদ্ধ হয়ে যাবে। এমনকি সে ক্ষেত্রে একটি ফ্লোরে আটকে পড়া শ্রমিকদের ছাদে উঠে গিয়ে সেখান থেকে ঝাঁপ দেয়ার কথা।

সজীব গ্রুপের বিরুদ্ধে অধিকাংশ মিডিয়া আসল সত্য বের হতে দিবে না। এবং আগামীতে ইনভেস্টিগেশনে কি বের হবে সেটা জানা কথা।

কিন্তু, এখন পর্যন্ত শ্রমিকদের যে বক্তব্য জানা যাচ্ছে, এবং এ ধরনের বিল্ডিংয়ের এডমিনিস্ট্রেশন এর পূর্ব অভিজ্ঞতা থেকে বলছি- এটা একটা পরিষ্কার হত্যাকাণ্ড। হয় গেটলক ছিল। অথবা ফায়ার এক্সিট ছাড়া বিল্ডিংয়ে প্রধান গেটের উপর প্রচুর পরিমাণ দাহ্য বস্তু ছিল যে পথটা পুরোপুরি রুদ্ধ ছিল।

দুইটাই মালিকের অবহেলাজনিত স্ট্রাকচারাল হত্যাকাণ্ড।

শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন
  • 38
    Shares